‘ডিআরএসের সাহায্য পেলে ৯’শ উইকেট পেত অনিল কুম্বলে’

8

স্পোর্টস ডেস্ক::
ডিসিশন রিভিউ সিস্টেমের সাহায্য পেলে টেস্টে অনিল কুম্বলের উইকেট সংখ্যা ৯০০ হতো বলে মনে করেন গৌতম গম্ভীর।
১৩২ টেস্টে ২৯.৬৫ গড়ে ৬১৯ উইকেট নিয়েছেন কর্নাটকি। ৩৫ বার ইনিংসে পাঁচ উইকেট ও আট বার ম্যাচে ১০ উইকেট নিয়েছেন। ইনিংসে ১০ উইকেট নেওয়ার বিরলতম রেকর্ডও রয়েছে কুম্বলের দখলে। যদিও তিনি ডিআরএস প্রযুক্তির সাহায্য পাননি। যা পাননি হরভজন সিংহও। গম্ভীরের মতে, লেগস্পিনার কুম্বলে ও অফস্পিনার হরভজন হলেন ভারতের শ্রেষ্ঠ দুই স্পিনার।দেশের প্রাক্তন বাঁহাতি ওপেনার বলেছেন, “ডিআরএস প্রযুক্তির সাহায্য পেলে কুম্বলে টেস্টে ৯০০ উইকেট পেত। হরভজন নিত ৭০০ উইকেট। ওরা দু’জনেই সামনের পায়ে এলবিডব্লিউয়ের সুবিধা কখনও পায়নি। এক বার ভাবুন, ভাজ্জি কেপটাউনে সাত উইকেট নিয়েছিল। ওরা যদি ঘূর্ণি পিচে খেলার সুযোগ পেত, তবে বিপক্ষ ১০০ রানও করতে পারত না।”
গম্ভীরের মতে, তাঁর কাছে সেরা ক্যাপ্টেনও হলেন অনিল কুম্বলে। ২০০৮ সালে ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজের প্রসঙ্গ টেনে এনে তিনি বলেছেন, “সহবাগের সঙ্গে ডিনার করছিলাম। এমন সময় কুম্বলে এসে বলল, সিরিজে যেমনই পারফরম্যান্স করি না কেন, আমরা দু’জনই ওপেন করব চার টেস্ট। বলেছিল, আটটা শূন্য করলেও চিন্তার কিছু নেই। কেরিয়ারে এমন ভাবে ভরসা দেওয়ার কথা আগে কখনও শুনিনি। তাই কারও জন্য যদি জীবন দেওয়ার প্রশ্ন আসে, তবে কুম্বলের জন্যই তা দেব। আমার হৃদয়ে এখনও সেই কথাগুলো টাটকা।”
সেই সিরিজে ডাবল সেঞ্চুরি করা গম্ভীরের আক্ষেপ, নেতা কুম্বলেকে সে ভাবে পেলই না ভারত। তিনি বলেছেন, “সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, মহেন্দ্র সিংহ ধোনি বা বিরাট কোহালির মতো কুম্বলে যদি লম্বা সময় ধরে নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ পেত, তবে অনেক রেকর্ড করত। ও কিন্তু অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলঙ্কায় কঠিন সিরিজে নেতৃত্ব দিয়েছে।” গম্ভীরের মতে, কুম্বলেকেই রোল মডেল করে এগিয়ে চলা উচিত উঠতি ক্রিকেটারদের।