যুক্তরাষ্ট্র মিশিগানের গভর্ণর হুইটমারের জরুরী ক্ষমতাকে চ্যালেঞ্জ করে মামলা

73

কামরুজ্জামান হেলাল, যুক্তরাষ্ট্র:

বুধবার মিশিগান আইনসভার শীর্ষস্থানীয় রিপাবলিকানরা গভর্ণর গ্রেচেন হুইমটারের জরুরী ক্ষমতাকে চ্যালেঞ্জ করে একটি মামলা করেছেন। মামলায় কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে হুইটমার কতোটা ক্ষমতা খাটাতে পারবেন সেই বিষয়েই চ্যালেঞ্জ জানানো হয়েছে। এর মাধ্যমে ডেমোক্র্যাট গভর্ণরের সঙ্গে রিপাবলিকানদের সরাসরি দ্বন্দ্ব তৈরি হলো বলে ধারণা করা হচ্ছে। মিশিগানের রাজধানী ল্যান্সিংয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে হাউস স্পিকার লি চ্যাটফিল্ড এবং সিনেটের মেজরিটি লিডার মাইক শিরকি জানিয়েছেন, রাজ্যের আদালতে মামলাটি করেছেন তারা। চ্যাটফিল্ড বলেন, বিধিনিষেধ নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। সবাই সমানভাবে নেন না। কিন্তু গভর্ণর একা চলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। চ্যাটফিল্ড বলেছেন, “এর কারণেই আমরা আজ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছি, গভর্ণরের অসাংবিধানিক পদক্ষেপগুলিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছি।”আজকের দিনটি ভালভাবেই এড়ানো যেতো। কিন্তু আমরা পারিনি গভর্ণরের কারণে। আমাদের রাজ্যের জন্য আজ দুঃখের দিন। কারণ সত্যই আমাদের সবাইকে একসাথে কাজ করা উচিত” মিশিগান আইনসভা কর্তৃক রিপাবলিকান নিয়ন্ত্রিত হাউস এবং সিনেটের পক্ষে হুইটমারের একতরফা ক্ষমতার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য চ্যাটফিল্ড এবং শিরকিকে সমর্থনের প্রস্তাব অনুমোদনের ছয় দিন পর বুধবার এই ঘোষণা করা হয়। রিপাবলিকানরা চাইছেন, অর্থনীতির দিকটি লক্ষ্য রেখে পুনরায় সবকিছু খুলে দেওয়া হোক। কিন্তু গভর্ণর এবং তার দলের আইনপ্রণেতারা করোনা ভাইরাসের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে অর্থনীতির দ্বার উন্মোচন করতে চাইছেন। রিপাবলিকানরা ১৯৭৬ সালের জরুরি ব্যবস্থাপনা আইনের কথা বলছেন। ঐ আইন অনুযায়ী, গভর্ণর জরুরি অবস্থায় একক সিদ্ধান্তে ২৮ দিন পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা বাড়াতে পারবেন। এরপর বাড়াতে হলে আইনসভার অনুমোদন নিতে হবে। কিন্তু গভর্ণর সেটা নিচ্ছেন না। তবে ডেমোক্র্যাটরা বলছেন ১৯৪৫ সালের জরুরি অবস্থার আইনের কথা। সেখানে বলা হয়েছে, আইনসভার অনুমোদন ছাড়াই গভর্ণর ইচ্ছামতো নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়াতে পারবেন। আগামী ২৮ মে পর্যন্ত স্টে হোম অরডার বাড়িয়েছেন হুইটমার। মিশিগান সুপ্রিম কোর্টে চারজন রিপাবলিকান মনোনীত বিচারপতি এবং তিনজন ডেমোক্র্যাট মনোনীত বিচারপতি রয়েছেন। তবে, বর্তমান আদালত প্রায়শই দলীয় ধারায় রায় দেয় না। দীর্ঘদিনের অ্যাটর্নি বব ল্যাব্রান্ট, যিনি এর আগে মিশিগান চেম্বার অফ কমার্সের পরামর্শ হিসাবে কাজ করেছিলেন, তিনি বলেছিলেন যে ১৯৪৫ সালের আইনের কারণে হুইটমার মামলাটি জিতবে। “আমি মনে করি গভর্ণর বিজয়ী হবেন,” ল্যাব্রেন্ট বলেছিলেন।