সিলেটে ২৫ চেয়ারম্যান প্রার্থীর ৯ জন স্বশিক্ষিত

1

সবুজ সিলেট ডেস্ক: সিলেটের চার উপজেলায় চেয়ারম্যান হতে চান ২৫ প্রার্থী। নির্বাচন কমিশনে দেওয়া হলফনামায় দেখা গেছে, ভোটের মাঠে রয়েছেন স্বশিক্ষিত ৯ প্রার্থী।

এর বাইরে মাধ্যমিকের গণ্ডি পেরোতে পারেননি দুজন, মাধ্যমিক পর্যন্ত পড়ালেখা করেছেন তিনজন, উচ্চ মাধ্যমিক যোগ্যতা রয়েছে চার প্রার্থীর, আছেন ডিপ্লোমাধারী একজন, দুই আইনজীবী রয়েছেন এলএলবি ও এমএসসি পাস, এমবিবিএস একজন ও আরেক প্রার্থীর যোগ্যতা এমএসএস।

নির্বাচন কমিশনে দেওয়া হলফনামা ঘেটে দেখা গেছে, প্রবাসী অধ্যুষিত বিশ্বনাথ উপজেলায় ১০ চেয়ারম্যান প্রার্থীর সাতজনই স্বশিক্ষিত, মাধ্যমিকের গণ্ডি পেরোতে পারেননি দুজন এবং একজন সর্বোচ্চ শিক্ষাগত যোগ্যতা এমএসসি।

এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আকদ্দুছ আলী লড়ছেন হেলিকাপ্টার মার্কা নিয়ে, আলতাব হোসেন (টেলিফোন), গিয়াস উদ্দিন আহমদ (আনারস), গৌছ খান (কৈ মাছ), মোহাম্মদ এস আলী এনামুল হক চৌধুরী (মোটরসাইকেল), মোহাম্মদ সুহেল আহমদ চৌধুরী (কাপ-পিরিচ), মো. আব্দুল রোসন চেরাগ আলী (ঘোড়া), মো. সেবুল মিয়া (দোয়াত কলম), সফিক উদ্দিন (উট), শামসাদুর রহমান রাহিন (শালিক)।

সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এরমধ্যে স্বশিক্ষিত একজন, উচ্চ মাধ্যমিক তিনজন, সপ্তম শ্রেণি পাস একজন, এলএলবি ডিগ্রিধারী একজন।

এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী মো. মইনুল ইসলাম (আনারস), মোহাম্মদ জুয়েল আহমদ (ঘোড়া), মো. বদরুল ইসলাম (টেলিফোন), মো. শামীম আহমদ (মোটরসাইকেল), মো. সাহেদ মোশারফ (কাপ-পিরিচ) নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

গোলাপগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে তিন প্রার্থীর একজন এসএসসি এবং স্নাতক ডিগ্রি রয়েছে অন্য দুই প্রার্থীর। চেয়ারম্যান পদের প্রার্থীরা হলেন, মঞ্জুর কাদির শাফি (দোয়াত-কলম), আবু সুফিয়ান (আনারস) ও শাহিদুর রহমান (ঘোড়া) প্রতীকে।

সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ছয় প্রার্থীর একজন স্বশিক্ষিত, মাধ্যমিক পর্যন্ত পড়ালেখা একজনের, একজন উচ্চ মাধ্যমিক, ডিপ্লমাধারী একজন, এমবিবিএস একজন ও আরেকজন এমএসএস।

এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদের প্রার্থীরা হলেন, ডা. মো. খলিলুর রহমান (টেলিফোন), মো. সুজাত আলী রফিক (কাপ-পিরিচ), মিল্লাত আহমদ চৌধুরী (ঘোড়া), মো. আহাদ মিয়া (দোয়াত-কলম), মো. এজাজুল হক মোটরসাইকেল, মো. সামসুল ইসলাম (আনারস)।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ৯ মে, বাছাই ১২ মে ও প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ১৯ মে। প্রতীক বরাদ্দ ২০ মে। ভোটগ্রহণ হবে ৫ জুন। ৫৫টি উপজেলার মধ্যে দুটিতে ইভিএমে ভোট হবে। সুত্র : বাংলা নিউজ