বিয়ের চার মাসে নববধূর পেটে বাচ্চা, এরপর যা ঘটলো

38

অনলাইন ডেস্ক: বিয়ের বয়স হয়েছে সবেমাত্র ৪ মাস। এর মধ্যে ১০ মাসের সন্তান প্রসব করেছেন নববধূ। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে মুখরোচক আলোচনা চলছে। ঘটনাটি ঘটেছে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জের কালচোঁ দক্ষিণ ইউনিয়নের একটি গ্রামে।
জানা যায়, ওই বাড়ির যুবতীর সঙ্গে ৪ মাস আগে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় পাশের বাকিলা ইউনিয়নের রাধাসার গ্রামের জনৈক যুবকের। বিয়ের পর ওই নববধূ কিছু দিন স্বামীর বাড়িতে থাকার পর বাবার বাড়িতে চলে যায়। সেখানে গত ৩০ এপ্রিল তার পেট ব্যথা দেখা দিলে হাজীগঞ্জের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে ১ মে কন্যা সন্তান প্রসব করে তিনি।

হাসপাতাল থেকে নববধূ তার সন্তান নিয়ে বাবার বাড়িতে গেলে চারদিকে কানাঘুষা শুরু হলে এক-কান দুকান করে পুরো গ্রাম ছড়িয়ে স্বামীর বাড়িতেও খবর চাউর হয়ে যায়।

ওই নববধূর বোন বলেন, তার স্বামী যৌতুকের দাবিতে তাকে অত্যাচার করতো। এই ঘটনায় মামলা চলমান রয়েছে। আর এই সুযোগে তার আপন ছোট বোনের সঙ্গে অবৈধভাবে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয় কাউসার।

এ বিষয়ে নববধূ প্রথমে কথা বলতে চাননি। পরে জানান, বিভিন্ন সময়ে তার বড় বোনের স্বামী কাউসার দিনে ও রাতে সুযোগ বুঝে মুখ চাপা দিয়ে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হতো। এখন এ ঘটনার কারণে যদি স্বামী তাকে না নেয় তাহলে সে ছাড়াছাড়ি মেনে নেবেন।

এ বিষয়ে জানতে বোন জামাই একই ইউনিয়নের নওহাটা ফকির বাড়ীর ফারুকের ছেলে অভিযুক্ত কাউসারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে গেলে তাকে পাওয়া যায়নি। এ ছাড়া কাউসারের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

কালচোঁ দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদের শাকছিপাড়া গ্রামের ইউপি সদস্য (মেম্বার) এম এ খালেক বলেন, নববধূর স্বামী এসে বিষয়টি আমাকে জানিয়ে গেছে।