৪০ বছর পর চ্যাম্পিয়্ন্স লিগে ফিরলো ভিলা

0

স্পোর্টস ডেস্ক: সর্বশেষ ১৯৮২-৮৩ মৌসুমে চ্যাম্পিয়্ন্স লিগে খেলার সুযোগ পেয়েছিল অ্যাস্টন ভিলা। তখন অবশ্য এর নাম চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ছিল না। পরিচিত ছিল ইউরোপিয়ান লিগ নামে। এরপর কেটে গেছে ৪০ বছরেরও বেশি সময়। দীর্ঘ এই সময়ের মধ্যে আর ইউরোপের সেরা ক্লাব প্রতিযোগিতাটিতে ফেরা হয়নি ভিলার।

অবশেষে দীর্ঘদিনের আক্ষেপ ঘুচলো ভিলার। ৪ যুগ পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জায়গা করে নিলো তারা। এতদিন নিশ্চিত হয়েও হচ্ছিল না। বহু অপেক্ষার পর গতকাল মঙ্গলবার রাতে টটেনহ্যাম হটস্পার ২-০ গোলে ম্যানচেস্টার সিটির কাছে হারের পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জায়গা নিশ্চিত হলো ভিলার।
আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলতে হলে প্রিমিয়ার লিগের সেরা চারে থেকে চলতি মৌসুম শেষ করতে হবে ভিলাকে। এতদিন এই চতুর্থস্থান দখলের লড়াইয়ে টটেনহ্যামের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে আসছিল উনাই এমেরির দল। শেষমেশ প্রিমিয়ার লিগের এক ম্যাচ হাতে রেখেই ইউরোপীয় সেরা ক্লাব প্রতিযোগিতায় কোয়ালিফাই করলো ভিলা।

৩৭ ম্যাচে ভিলার পয়েন্ট ৬৮। তাদের হাতে যে একটি ম্যাচ আছে, তা লিভারপুলের বিপক্ষে আগামী সোমবার। এই ম্যাচে যদি তারা হেরে যায়, তাহলেও টটেনহ্যাম নাগাল ধরতে পারবে না ভিলার। কারণ, ৩৭ ম্যাচে টটেনহ্যামের পয়েন্ট ৬৩। বাকি এক ম্যাচে যদি টটেনহ্যাম জিতলেও চতুর্থ আসতে পারবে না। সেক্ষেত্রে তাদের পয়েন্ট হবে বড় জোর ৬৬। অর্থাৎ ভিলা থেকে ২ পয়েন্ট পিছিয়েই থাকবে তারা।
বুধবার রাতে টটেনহ্যামের হারের পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ভিডিও পোস্ট করে ভিলা। যেখানে দেখা যায়, কোচ এমেরি ও ফুটবলাররা একটি অনুষ্ঠান উদযাপন করছেন।
১৯৮১-৮২ মৌসুমে ইউরোপিয়ান কাপ জিতেছিল ভিলা। পরের মৌসুমে কোয়ার্টার ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে হেরে বাদ পড়ে ভিলা। এরপর ১৯৯২ সালে ইউরোপিয়ান কাপের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। সে হিসেবে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জায়গা পেল ভিলা।