ফল উৎসবে অধ্যাপক মুহঃ হায়াতুল ইসলাম আকঞ্জি: এই প্রজন্মের- ফাস্টফুডের প্রতি যতোটা আসক্তি, ফলের প্রতি ততোটা নেই

1
সিলেট অফিস: সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ জনাব অধ্যাপক মুহঃ হায়াতুল ইসলাম আকঞ্জি বলেন, “বৈচিত্র্যময় ফুল-ফলে সমৃদ্ধ আমাদের এই দেশ। কিন্তু আক্ষেপের বিষয় এই যে, নতুন প্রজন্মের তরুণ-তরুণীরা এই ফুল-ফল সম্পর্কে কোনো ধারণা রাখে না বরং তাদের অত্যধিক আসক্তি ফাস্টফুডের প্রতি।”
তিনি আরও বলেন, “আমার বাচ্চারা আমাকে প্রায়ই বাইরে থেকে আসার সময় ফল নিয়ে আসতে বলে। অবাক করা বিষয় তাদের কাছে ফল বলতে শুধু আম, জাম, কাঁঠাল, লিচু, আঙ্গুর, আপেল; কিন্তু আমি গ্রামের মানুষ, গ্রামে বড় হয়েছি, আমি জানি- আমাদের দেশ কত বাহারি রকমের ফলে ভরপুর।”
তিনি গতকাল বুধবার সকাল ১১ ঘটিকায় নগরীর কুমারপাড়াস্থ মালঞ্চ কমিউনিটি সেন্টারে উৎযাপিত ‘ডব্লিউএমসি ফল উৎসব ২০২৪’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উক্ত কথাগুলো বলেন।
উইমেন্স মডেল কলেজের অধ্যক্ষ জনাব আব্দুল ওয়াদুদ তাপাদারের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কারপ্রাপ্ত (২০২৩) ব্যক্তিত্ব ও দৈনিক প্রথম আলো’র সিলেট ব্যুরো প্রধান জনাব সুমন কুমার দাশ। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, “শিক্ষার্থী হিসেবে তোমরা সবসময় মানুষ হওয়ার মূলমন্ত্র আঁকড়ে ধরবে। মানুষের ভালোবাসা নিয়ে সামনে এগিয়ে যাবে। মানুষ হতে গেলে দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি সম্পর্কে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। আমাদের দেশের হারিয়ে যাওয়া ঐতিহ্যগুলোকে টিকিয়ে রাখতে হবে। পাশাপাশি প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষায় সবচেয়ে বড় অবদান রাখা বৃক্ষরাজিকে বাঁচিয়ে রাখার দায়িত্ব নিতে হবে তোমাদের।”
বিশেষ অতিথি হিসাবে এছাড়া বক্তব্য রাখেন শিক্ষা, সীমান্তিকের অধ্যক্ষ ও পরিচালক জনাব আব্দুর রউফ তাপাদার এবং ইএসডি ফাউন্ডেশনের ভাইস-চেয়ারম্যান জনাব মনসুর আহমেদ লস্কর। অতিথি হিসাবে আরও উপস্থিত ছিলেন- সিলেট প্রেসবেটেরিয়ান চার্চের প্যাস্টর জনাব রেভারেন্ড দাভিদ, ইএসডি ফাউন্ডেশনের সদস্য জনাব কাজী সাজিদ আলী, প্রাইভেট স্কুল এসোসিয়েশনের সভাপতি ও সার্ক ইন্টারনেশনাল কলেজ বাংলাদেশের অধ্যক্ষ জনাব মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, প্রাইভেট স্কুল এসোসিয়েশনের সেক্রেটারি ও নলেজ গার্টেন স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ জনাব শিশির সরকার, জালালাবাদ রোটারি ক্লাবের সভাপতি জনাব মোঃ মঞ্জুর আল বাছেত, জালালাবাদ রোটারি ক্লাবের সহ-সভাপতি জনাব আখতার আহমেদ, জালালাবাদ রোটারি ক্লাবের সদস্য জনাব আরশাল আলী, বাংলাদেশ ব্যাংক স্কুলের প্রধান শিক্ষক জনাব আবুল কাসেম।
ফল উৎসবে এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ গার্লস গাইড এসোসিয়েশনের আঞ্চলিক কমিশনার ও অগ্রগামী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক জনাব বাবলী পুরকায়স্থ, বাংলাদেশ গার্লস গাইড এসোসিয়েশনের আঞ্চলিক উপদেষ্টা জনাব সালমা বাছিত, দিশারী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ প্রবাল ভট্টাচার্য, স্টুডেন্ট হোম স্কুলের অধ্যক্ষ জনাব এম ই এইচ মিলন, পাইওনিয়ার স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ জনাব মো: আলী আশরাফ তাপাদার, নলেজ গার্টেন স্কুল এন্ড কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল জনাব মৌ পাভেল, জকিগঞ্জ উপজেলার ভূমি সহকারী কর্মকর্তা জনাব রতীশ দাস, ইউনিক মাল্টিমিডিয়া স্কুলের অধ্যক্ষ জনাব ফাতেমা পারভীন মালা, সূর্যোদয় এটিম স্কুলের প্রধান শিক্ষক জনাব মোঃ হাসান তালুকদার সোহেল, দিশারী স্কুল এন্ড কলেজের সহকারী শিক্ষক জনাব মিল্টন শর্মা, আম্বরখানা দরগাহ গেইট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) জনাব আরতি দত্ত, রুপালী এলোমিনিয়াম ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেডের এমডি জনাব কাজী জয়নুল হক, আম্বরখানা শিশু স্কুলের সিনিয়র শিক্ষক জনাব ইয়াসমিন আক্তার, আম্বরখানা গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের সিনিয়র শিক্ষক জনাব শিপ্রা দেব, সিলেট লেখিকা সংঘের অর্থ সম্পাদক জনাব শিপারা শিপা, উইমেন্স মডেল কলেজ এর প্রাক্তন শিক্ষক জনাব মহিউদ্দিন, উইমেন্স মডেল কলেজ এর প্রাক্তন শিক্ষক এবং বর্তমানে আম্বরখানা গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ এর প্রভাষক জনাব অর্পন পাল, আম্বরখানা গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ এর সহকারী শিক্ষক রিংকু আচার্য প্রমুখ।
উইমেন্স মডেল কলেজের প্রভাষক জনাব তৌফিক রাসেল এবং প্রভাষক হেলাল হামামের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন  উইমেন্স মডেল কলেজের কোওর্ডিনেটর ও সিনিয়র প্রভাষক জনাব কাজী মাহবুবুল আলম মঞ্জুর। অনুষ্ঠানের প্রথম পর্ব অর্থাৎ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে ফিতা কেটে ‘ফল উৎসব ২০২৪’ এর শুভ উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি এবং আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ। এরপর প্রায় সত্তরেরও অধিক প্রজাতির ফল এবং ফলের চারাগাছ পরিদর্শন করেন। সবশেষে অতিথি, শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকসহ সবাইকে ফল দিয়ে আপ্যায়ন করানো হয়।
অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে উইমেন্স মডেল কলেজের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকের প্রযোজনায় আয়োজিত হয় বর্ণাঢ্য এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। অপরাহ্ন পর্যন্ত সিলেটের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ ও স্কুলের শিক্ষকবৃন্দ; সাংবাদিক, শিল্প ও সাহিত্য ব্যক্তিত্বের উপস্থিতি উৎসবকে করে তোলে আরও প্রাণবন্ত। সবার আনন্দকে আরও বাড়িয়ে দিতে উপস্থিত হয়েছিলেন ডাব্লিউএমসির সাবেক শিক্ষকবৃন্দ।
সভাপতির বক্তব্যে উইমেন্স মডেল কলেজের অধ্যক্ষ জনাব আব্দুল ওয়াদুদ তাপাদার বলেন, “এই ফল উৎসবের প্রধান উদ্দেশ্য নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের ফল সম্পর্কে জানানো, ফলের গুণাগুণ এবং ফল সম্পর্কে অবহিতকরণ। ফল ও ফলের গাছ হচ্ছে প্রকৃতির এক আশীর্বাদ– যা আমাদের আজকের প্রজন্মকে উদ্বুদ্ধ করবে- জলবায়ু সংকট মোকাবেলা ও সবুজায়নে।”
উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে উইমেন্স মডেল কলেজের ফল উৎসব ২০২৪ এর আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি টানেন৷