সিলেটে অপহরণে বাধা দেওয়ায় সাংবাদিকের হাত কাটার হুমকি ছাত্রলীগ নেতার

33

নিজস্ব প্রতিবেদক: সিলেট পুলিশ ফাঁড়ির সামনে থেকে এক যুবককে অপহরণে বাধা দেওয়ায় ফটো সাংবাদিক রেজা রুবেলের ওপর হামলা চালানোর অভিযোগ উঠেছে মহানগর ছাত্রলীগের ২নং ওয়ার্ড সভাপতি পিয়াং সোমসহ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে। এ সময় সাংবাদিক রেজার হাত কেটে নেওয়ার হুমকি দেন পিয়াং সোম।
বুধবার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে নগরীর বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে।
রেজা রুবেল বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন (বিপিজেএ) সিলেট বিভাগীয় কমিটির ক্রীড়া ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক এবং স্থানীয় একটি পত্রিকার ফটো সাংবাদিক। পিয়াং সোম সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাহেল সিরাজের অনুসারী বলে জানা গেছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ফটো সাংবাদিক রেজা রুবেল বুধবার বিকেলে সিলেট নগরীর বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় দেখেন কয়েকজন যুবক জোরপূর্বক একজনকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তুলে নেওয়ার চেষ্টা করছেন। এ সময় তিনি এর কারণ জানতে চাইলে ছাত্রলীগ নেতা পিয়াং সোমসহ আরও কয়েকজন অতর্কিতভাবে তার ওপর হামলা চালায়। সাংবাদিক পরিচয় দিলে পিয়াং সোমসহ অন্যান্যরা তার ওপর আরও চড়াও হন এবং রেজা রুবেলের হাত কেটে নেওয়ার হুমকি দেয় পিয়াং সোমসহ তার সঙ্গীরা।
হামলার বিষয়ে রেজা রুবেল বলেন, আমি পেশাগত দায়িত্ব পালনের উদ্দেশ্যে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের দিকে যাচ্ছিলাম। এ সময় কয়েকজন যুবক মিলে অজ্ঞাত এক যুবকের গতিরোধ করে তাকে অটোরিকশায় উঠিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলে আমি তার কারণ জানতে চাই। তখন তারা নিজেকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মী দাবি করে বলে, আমরা যা ইচ্ছা তা করব, তুই বাধা দেওয়ার কে? পরে আমি নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিলে তারা আমার ওপর চড়াও হয়। এ সময় পিয়াং সোম আমার হাত কেটে নেওয়ার হুমকি দেন। এ সমস্ত ঘটনার একটি ভিডিও ফুটেজ আমার কাছে আছে। পুলিশ ফাঁড়ির ভিডিও ফুটেজে বিষয়টি আরও পরিষ্কার বোঝা যাবে। আমি প্রাণ ভয়ে আছি।
বিষয়টি নিয়ে সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাঈম আহমদ বলেন, ছাত্রলীগ কখনো সন্ত্রাসী কাজকে প্রশ্রয় দেয় না। কেউ যদি ছাত্রলীগের নামে কোনো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে তবে এর দায় ছাত্রলীগ নেবে না। এরকম কিছু ঘটে থাকলে সাংবাদিকদের সঙ্গে সিলেট মহানগর ছাত্রলীগ সব সময় পাশে থাকবে।
বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) কল্লোল গোসাম্বী বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। আমি ঘটনাটির খোঁজ নিয়ে দেখব।
প্রসঙ্গত, সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাহেল সিরাজের অনুসারী পিয়াং সোম ২০২৩ সালের ১৩ নভেম্বর সোমবার সিলেট সিটি করপোরেশনের ১নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সৈয়দ তৌফিকুল হাদীর বাসায় হামলা ও ভাঙচুর করেন। সে সময় পিয়াং সোম প্রায় ৫০-৬০ জন নেতাকর্মী নিয়ে সশস্ত্র হামলা চালিয়ে কাউন্সিলরের বাসার সামনে রাখা একটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে তার বাসায় ব্যাপক তাণ্ডব চালায়। যদিও পরে সিসিকের বেশ কয়েকজন কাউন্সিলর ও ছাত্রলীগের রাহেল সিরাজের মধ্যস্থতায় বিষয়টি মীমাংসা হয়।