গোয়াইনঘাটে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ফের উপজেলা চেয়ারম্যান হচ্ছেন ফারুক

6

শাহ আলম, গোয়াইনঘাট (সিলেট) প্রতিতিনি: সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে দুজন মনোনয়নপত্র জমা দিলেও একজনের মনোনয়ন বাতিল হওয়ায় বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ফারুক আহমদ আবারো বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন।

সোমবার (২৯ এপ্রিল) সকালে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আলহাজ্ব শাহ আলম স্বপন এর মনোনয়ন অবৈধ ঘোষণা করে।

জানাগেছে, গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য চেয়ারম্যান পদে ফারুক আহমেদ ও শাহ আলম স্বপন মনোনয়নপত্র জমা দেন।

মনোনয়ন পত্র যাচাই বাছাই শেষে (২৩ এপ্রিল) শাহ আলম স্বপনের মনোনয়ন পত্র অবৈধ ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন এর পর (২৯ এপ্রিল) আপিল নিস্পত্তিতেও তথ্য গোপন করায় স্বপনের মনোনয়ন বাতিল করায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ফের উপজেলা চেয়ারম্যান হওয়ার পথে ফারুক আহমদ।

এদিকে স্বনের মনোনয়ন বাতিলের খবরে ফারুক আহমদ’র সমর্থকদের মাঝে উল্লাস দেখা যায়। তার সমর্থকদের উঠান বৈঠক, গণসংযোগ, কেন্দ্র কমিটি গঠন ও পোলিং এজেন্ট প্রশিক্ষণ দেওয়াসহ নির্বাচন কেন্দ্রীক সব তৎপরতার ইতি ঘটেছে। তারা তাকিয়ে আছেন নির্বাচন কমিশনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণার দিকে।

অন্যদিকে চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচিত হওয়ায় শুধুমাত্র পুরুষ ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রচারণায় রয়েছেন বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম আম্বিয়া কয়েস, ইসলাম উদ্দিন, কুতুব উদ্দিন ও ফারুক আহমদ।

এছাড়া মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফিয়া বেগম, সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খোদেজা রহিম কলি ও মোছা: মরিয়ম বেগম মাঠে রয়েছেন।

প্রার্থিতা বাতিল হওয়ার পর শাহ আলম স্বপন বলেন, উপজেলা বাসির ভোটাধিকারের ক্ষমতা ফিরিয়ে দিতে ও প্রার্থীতা ফিরে পেতে আইনী লড়াই চালিয়ে যাব।

গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাচন অফিস সুত্রে জানাযায়, শাহ আলম স্বপনের মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়ায় চেয়ারম্যান পদে একক প্রার্থী ফারুক আহমদ। এ বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ প্রক্রিয়াধীন।